টাঙ্গাইলে পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদের মে দিবস পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ পিএম, বুধবার, ১ মে ২০২৪ | ৮২

টাঙ্গাইলে হাজার-হাজার শ্রমিকদের নিয়ে বিশাল শোডাউনের মধ্যে দিয়ে মহান মে দিবস পালন করেছে পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদ।

বুধবার(১ মে) সকালে শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগাঁহ ময়দানে ২২টি শ্রমিক সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদ মে দিবসের ব্যানারে শ্রমিক সমাবেশের মাধ্যমে এ শোডাউন করে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম ভিপি জোয়াহের।

সমাবেশটি উদ্বোধন করেন টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ ছানোয়ার হোসেন এমপি।

সমাবেশে এসে একাত্বতা প্রকাশ করেন টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানা।

পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি টাঙ্গাইল পৌর মেয়র এসএম সিরাজুল হক আলমীরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,টাঙ্গাইল সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহজাহান আনছারী,জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুজ্জামান সোহেল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক রেজাউর রহমান চঞ্চল, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ওয়াজির হাসান খান শরীফ হাজারী,শিক্ষা ও মানব বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকে মহসিন শিকদার,উপ-প্রচার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুর রহিম,জেলা অ্যাডভোকেট বার সমিতির সভাপতি শামীমুল আক্তার শামীম,সদস্য আমিরুল ইসলাম খান ও আকরাম হোসেন কিসলু প্রমুখ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌসী আক্তার রুনু, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন খান তোফা,জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ হাসান,ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইসতিয়াক আহম্মেদ রাজীব।

সমাবেশে এসে একাত্বতা প্রকাশ করেন জেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগের সভাপতি মির্জা আনোয়ার হোসেন বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক মাতিন উজ্জামান খান সুখন ও টাঙ্গাইল জেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, টাঙ্গাইল জেলায় ক্রিয়াশীল বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের বিগত দিনগুলোতে টাকার বিনিময়ে পকেট কমিটি গঠন করা হয়েছে। তার প্রতিবাদে দুই বছর পুর্বে ২২টি শ্রমিক সংগঠন নিয়ে পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদ গঠন করা হয়। শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার আদায়ে এই সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে। এই সংগঠন যে সঠিক পথে চলছে- তার প্রমান প্রচÐ তাপদাহ উপেক্ষা করে এ সমাবেশে হাজার-হাজার শ্রমিকদের উপস্থিতি। বক্তারা আরো বলেন, আর যাই হোক রাজনীতির নামে জেলা আওয়ামী লীগকে নিয়ে কোন ধরনের ছিনিমিনি খেলতে দেওয়া হবেনা। আজ থেকে টাকার বিনিময়ে কোন শ্রমিক সংগঠনই পকেট কমিটি গঠন করতে দেওয়া হবেনা। এখন থেকে প্রতিটি শ্রমিক সংগঠনে বৈধ নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠন করতে হবে।

এদিকে, শহরের শিবনাথ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা শ্রমিক ফেডারেশন পৃথক শ্রমিক সমাবেশ করেছে। উক্ত শ্রমিক সমাবেশে সাবেক কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক, কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশীদ,টাঙ্গাইল-২(ভুয়াপুর-গোপালপুর) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনির, টাঙ্গাইল-৮(বাসাইল-সখিপুর) আসনের সংসদ সদস্য অনুপুম শাজাহান জয়,টাঙ্গাইল-৭(মির্জাপুর) আসনের সংসসদ সদস্য খান আহম্মেদ শুভ, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খন্দকার আশরাফ উজ্জামান স্মৃতি,সাংগঠনিক সম্পাদক জামিলুর রহমান মিরন,মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছিমা বাছেদ ও কালিহাতী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজহারুল ইসলাম তালুকদার উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, মে দিবসের কর্মসুচীকে কেন্দ্র করে জেলা আওয়ামী লীগের বিবাদমান দুটি পক্ষই শহরের শহীদস্মৃতি পৌর উদ্যানে শ্রমিক সমাবেশের আহবান করে। এনিয়ে শহরে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হলে প্রশাসন কোন পক্ষকেই পৌর উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়নি। পরে একটি পক্ষ জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের ব্যানারে শহরের শিবনাথ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ও অপরপক্ষ পৌর শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ব্যানারে কেন্দ্রীয় ঈদগাঁহ ময়দানে সমাবেশ আহবান করেন। মঙ্গলবার রাত থেকেই প্রশাসন পৌর উদ্যানের প্রবেশ পথ বটতলা মোড়, নিরালা মোড়, মডেল প্রাইমারি স্কুলের মোড়, প্রিন্স হোটের সামনে ও কলেজ পাড়া চৌরাস্তা বালুর ট্রাক দিয়ে আংশিক বন্ধ করে দেয়। প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারণে শহরে কোন রকম বিশৃঙ্খলা ছাড়াই দুইপক্ষের শ্রমিক সমাবেশ শান্তিপুর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।