ভাঙ্গন রোধে যমুনা নদীতে জিও ব্যাগ ফেলানো হচ্ছে

আগামী বন্যায় চরাঞ্চলের মানুষকে আর ভিটে ছাড়া হতে হবে না ...ছানোয়ার হোসেন এমপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩৬ পিএম, শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১৩৬৩২

টাঙ্গাইল সদর আসনের এমপি ছানোয়ার হোসেন বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইল সদর আসনেও কাজ চলমান রয়েছে। ভাঙ্গন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড তড়িৎ ব্যবস্থা গ্রহণ করায় পানি উন্নয়ন বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

মাহমুদ নগর এলাকায় যমুনা নদীতে প্রায় ৬শ মিটার এলাকায় জুড়ে অস্থায়ীভাবে বাধ দেওয়া হয়েছিলো। সেটিও আস্তে আস্তে ভেঙ্গে যাচ্ছে। ইতিপূর্বে বেশ কয়েকটি এলাকা নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গিয়েছে। ।

৩ কিলোমিটার স্থায়ী বাধ পরিকল্পনা করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। যমুনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষা করতে নদীর তীর সংরক্ষণ প্রকল্পের কাজ চলছে।

এ প্রকল্পের জন্য প্রথম পর্যায়ে প্রায় ১ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।দ্রুত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়নও করা হবে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহযোগিতায় টাঙ্গাইল সদর উপজেলার মাহমুদ নগর ইউনিয়নের কুকুরিয়া ও সরাতৈল এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলানো হচ্ছে। যা বাড়িঘর ও ফসলি জমি ভাঙ্গন রোধে কাজ করবে।

আগামীতে চরাঞ্চলের মানুষ ভিটে ছাড়া না হয় সেই লক্ষ্যে স্থায়ী বাধ নির্মাণ করা হবে স্থায়ী বাধ নির্মাণ হলে আগামী বন্যায় চরাঞ্চলের মানুষকে আর ভিটে ছাড়া হতে হবে না। আবাসন না থাকলে কোন উন্নয়নই আমাদের কাজে আসবে না।

শনিবার দুপুরে সদর উপজেলার মাহমুদ নগর ইউনিয়নের কুকুরিয়া ও সরাতৈল এলাকায় জিও ব্যাগ ফেলানোর উদ্বোদনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

এসময় উপস্তিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আনছারী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহফুজুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবু সাইদ, মাহমুদ নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মাজেদুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা আকরাম হোসেন কিসলু, সদর উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান বকুল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।