টাঙ্গাইল-৫

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার উন্নয়নের প্রতিদানে ছানোয়ার হোসেন দ্বিতীয়বার এমপি

পারভেজ হাসান
প্রকাশিত: ০৫:৪৪ পিএম, সোমবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ১০৪৫

টাঙ্গাইল-৫ আসনে নির্বাচনী এলাকায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উন্নয়নের প্রতিদানে আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী মো. ছানোয়ার হোসেন টানা দ্বিতীয়বারের মত এমপি নির্বাচিত করেছেন টাঙ্গাইল সদর উপজেলা বাসী। এ আসনের অধিকাংশ ভোটাররা গত ৫ বছরের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকা প্রতীকে তাদের এই রায় দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

টাঙ্গাইল-৫ নির্বাচনী এলাকা এ আসনে পৌরসভা রয়েছে ১টি, ইউনিয়ন রয়েছে ১২টি, নির্বাচনী কেন্দ্র রয়েছে ১২৭টি। এ আসনে মোট ভোটার রয়েছে ৩ লাখ ৮০ হাজার ৩৩৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৮৮ হাজার ৫৭৩ জন। মহিলা ভোটার ১ লাখ ৯১ হাজার ৭৬৫ জন।

এই আসনে প্রধান চার প্রতিদ্বন্ধী ছিলেন বিএনপির প্রার্থী সাবেক মন্ত্রী মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান। অপরদিকে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে লাঙ্গল প্রতিকের প্রার্থী পীরজাদা শফিউল্লাহ আল মুনির। এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী মাথাল প্রতিকের মুরাদ সিদ্দিকী।

উপজেলার টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনে অবশেষে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ছানোয়ার হোসেন। নির্বাচনী কেন্দ্র ১২৭টি ফলাফলে দেখা গেছে নৌকা প্রতিকে তিনি ১ লক্ষ ৪৯ হাজার তিনশ ৬২ ভোট পান। তার প্রতিদ্বন্ধী ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী মেজর জেনারেল (অব.) মাহমুদুল হাসান ধানের শীষ প্রতিকে পান ৭৮ হাজার নয়শ ৯২ ভোট। অপরদিকে মহাজোটের প্রার্থী পীরজাদা শফিউল্লাহ আল মুনির লাঙ্গল প্রতিকের পান ১৮ হাজার তিনশ ৪১ ভোট । এছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী মাথাল প্রতিকের মুরাদ সিদ্দিকী পান ২৮ হাজার ছয়শ ৭০ ভোট ।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ২৯ জানুয়ারি প্রথমবারের মতো আলহাজ্ব মোঃ ছানোয়ার হোসেন সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন ।

২০০৮ সাল থেকে আওয়ামী লীগ সরকার পর পর দুইবার ১০ বছর ক্ষমতায় থাকার পর টাঙ্গাইল সদর উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। বিশেষ করে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ছানোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে যোগাযোগ ও শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হওয়ায় টাঙ্গাইল বাসির জীবনযাত্রার মানের উন্নয়ন ঘটেছে।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার একটি পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়নে সুষম উন্নয়ন হওয়ার পাশাপাশি এ এলাকার মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন ঘটে বলে জানা গেছে। একইভাবে প্রত্যেক ইউনিয়নে উন্নয়ন হওয়ায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ এলাকার মানুষ ভোটের মাধ্যমে উন্নয়নের প্রতিদান দিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মত মো. ছানোয়ার হোসেন এমপি নির্বাচিত করেছেন বলে এলাকাবাসীর বক্তব্য।

হুগড়া ইউনিয়নের দুলবাড়ির গ্রামের বয়োজষ্ঠ ব্যক্তি আব্দুল রাজ্জাক এবং মুদি দোকান ব্যবসায়ী মালেক বলেন আমাদের এলাকা রাস্তাঘাট সহ বিভিন্ন উন্নয়ন হয়েছে তাই আমরা এবার নৌকার ভোট দিয়েছি।

কাতুলী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কদ্দুস, হগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাপ সরকার , করটিয়া ইউনিয়নেরসাধারন সম্পাদক আলমগীর সিকদার বলেন আমরা গত ১০ বছরে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের কথা ভেবেই নৌকায় ভোট দিয়েছে এবং ছানোয়াার হোসেনকে দ্বিতীয়বারের মত এমপি নির্বাচিত করেছেন।।

আমরা গত ১০ বছরে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের প্রতিদান এ টাঙ্গাইল সদর উপজেলার জনগন নৌকায় ভোট দিয়েছে।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রেজাউর করিম সাগর গত ১০ বছরের উন্নয়ন কাজের প্রতিদান হিসেবে জনগন আমাদের প্রার্থী মো. ছানোয়ার হোসেন বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে।

টাঙ্গাইল শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ রৌফ বলেন মো. ছানোয়ার হোসেন তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতী অনুযায়ী টাঙ্গাইর সদর উপজেলায় সুষম উন্নয়ন করেছেন তার প্রতিদান হিসেবে এলাকাবাসী ভোটের মাধ্যমে তাকে এবার নির্বাচিত করেছে।

টাঙ্গাইল শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম- সাধারন সম্পাদক নাজমুল হুদা নবীন বলেন জনবান্ধব এমপি ছানোয়ার হোসেন এলাকায় যে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ করেছেন তার প্রতিদান দিয়েছে জনগন।

টানা দ্বিতীয়বার নির্বাচিত এমপি মো. ছানোয়ার হোসেন বলেন গত ৫ বছরে টাঙ্গাইল সদর উপজেলা যে উন্নয়ন করেছি জনগন তার মুল্যায়ন করে আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করায় আমি কৃতজ্ঞ। ইতিমধ্যে এলাকার ৭০ ভাগ উন্নয়ন কাজ করতে পেরেছি। জনগন আমাকে আবার নির্বাচিত করেছে, বাকি ৩০ ভাগ কাজ সকলের সহযোগীতায় সম্পন্ন করবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।